ভয়াবহ কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার জেনে নিন

0
267
ভয়াবহ কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার জেনে নিন

কিডনি মানবদেহের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। শরীরে নানান বিপাকের কারনে এক ধরনের বর্জ্য তৈরি হয়ে থাকে, আমাদের কিডনি ছাঁকনি হিসেবে কাজ করে সেই বর্জ্য শরীর থেকে বের করে দেয়। এই কিডনি তখনই ঠিক মতো কাজ করেনা যখন একজন মানুষ শারীরিকভাবে অন্যান্য সমস্যায় থাকেন যেমন উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস ইত্যাদি। আর কিডনি যখন ঠিকঠাক মতো কাজ করেনে তখন শরীরে একপ্রকার টক্সিন জমা হতে থাকে। এতে করে কিডনি ড্যামেজ হতে থাকে ধীরে ধীরে।

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
ভয়াবহ কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার জেনে নিন

কিডনি ড্যামেজের প্রাথমিক লক্ষণগুলো এতটাই সূক্ষ্ম যে প্রথম দিকে তা অনুধাবনই করা যায় না। তাই কিডনি ড্যামেজকে এক প্রকার “নীরব ঘাতক” বলা হয়। এই জন্য কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণগুলো আমাদের প্রত্যেকের আগে থেকে জেনে রাখা আবশ্যক। আমাদের আজকের পোস্ট সাজিয়েছি কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার নিয়ে। কিডনি ড্যামেজের লক্ষণগুলো যদি আমরা আগে থেকে জানতে পারি তাহলে কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায় বা কিডনি ড্যামেজ থেকে রক্ষা আমরা নিজেরাই করতে পারবো।

কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণগুলো নিয়ে নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ

ক্ষুধামান্দ্য বা ক্ষুধার অল্পতা

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
কিডনি রোগে ক্ষুধামান্দ্য বা ক্ষুধার অল্পতা

শরীরে বর্জ্য জমা হওয়া ও বিষাক্ত পদার্থ জমা হওয়ার কারনে ক্ষুধার সল্পতা দেখা যেতে পারে। এসময় কিছু না খাওয়ার পরেও সর্বদা পেট ভরা ভাব দেখা যায় এবং খাবারের প্রতি কোন রকম আগ্রহ থাকেনা বললে চলে।

বমি বমি ভাব

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
কিডনি রোগে বমি বমি ভাব

রক্তে বর্জ্য বেড়ে যাওয়ায় কিডনি সমস্যায় বমি বমি ভাব এবং বমি হওয়ার প্রবনতা দেখা দিতে পারে। ক্ষুধা কম হওয়ার জন্য আরেকটি কারণ হচ্ছে বমি বমি ভাব হওয়া এবং প্রায় বমি হওয়াও।

প্রস্রাবে পরিবর্তন

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
কিডনি সমস্যায় প্রস্রাবে পরিবর্তন

কিডনি রোগের আরো একটি বিশাল লক্ষণ হচ্ছে প্রস্রাবে পরিবর্তন। একজন সুস্থ মানুষ স্বাভাবিকভাবে দিনে ৫ থেকে ১০ বার প্রস্রাব করে থাকে। এর চেয়ে বেশি বা কম কিডনি রোগের একটি কারন হতে পারে। দেখা যায় একজন সুস্থ মানুষের তুলনায় কিডনির সমস্যায় জড়িত মানুষ খুব কম বা খুব ঘন ঘন প্রসাব করতে থাকে। বিশেষ করে রাতে এই সমস্যা প্রবলভাবে দেখা যায়। এক্ষেত্রে প্রস্রাবের রং সাধারনের তুলনায় গাঢ় হতে দেখা যায়। মাঝে মাঝে এমনও হয় যে প্রস্রাবের বেগ আসলে প্রস্রাব হয়না।

আরও পড়ুনঃ   মোবাইল রেডিয়েশন সম্পর্কে জেনে নিন

প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়া

কিডনি ড্যামেজ হওয়া শুরু করলে প্রস্রাবের সাথে প্রায়ই রক্ত বের হওয়া শুরু করে। এটি অনেক ঝুঁকির একটি বিষয়। এমতাবস্থায় দেরী না করে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

প্রস্রাবের সময় ব্যথা অনুভব

প্রস্রাব করার সময় ব্যথা অনুভব হওয়া কিডনির রোগের আরেকটি গুরুত্বপুর্ন লক্ষণ। সাধারনত প্রস্রাবের সময় ব্যথা, জ্বালাপোড়া ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনের কারনে হয়ে থাকে। কিন্তু এটি যখন কিডনি পর্যন্ত ছড়িয়ে যায় তখন প্রায়ই জ্বর হয় এবং পিঠের পেছন দিকে অনেক ব্যথা করে।

পায়ের গোড়ালি ফুলে যাওয়া

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
কিডনি সমস্যায় পায়ের গোড়ালি ফুলে যাওয়া

কিডনি শরীর থেকে অতিরিক্ত সোডিয়াম ফিল্টার করতে এবং শরীর থেকে বর্জ্য বের করে দিতে সাহায্য করে। কিডনি যখন ঠিকঠাকভাবে তার কাজ করতে পারে না, তখনই আপনার শরীর সোডিয়াম ধরে রাখে। আর এর ফলে পায়ের গোড়ালি ফুলে যায়। তাই পায়ের গোড়ালি ফুলে যাওয়া কিডনি নষ্ট হওয়ার কারন হতে পারে।

শরীর ফোলা ভাব

শরীর ভুলে যাওয়া একটি গুরুত্বপুর্ন কিডনি রোগের লক্ষণ। কিডনি সমস্যার কারনে শরীর থেকে বাড়তি পানি ও বর্জ্য স্বাভাবিকভাবে বের হতে পারেনা। যার কারনে শরীরে বাড়তি পানি চলে আসে এবং দেহে ফোলাভাব তৈরি হয়।

দুর্বলতা ও ক্লান্তিবোধ

সাধারনত দুর্বলতা বা ক্লান্তিবোধ লিভার সমস্যার লক্ষন হিসেবে ধরে নেয়া হয়। কিডনি রোগের জটিলতা বাড়ার সাথে সাথে শরীর অনেক দুর্বল হয়ে যায় এবং এতে অনেক ক্লান্ত বোধ হতে শুরু করে সর্বদা। এই সময় খুব ছোট কাজ যেমন হাটাহাটি বা ঘরের টুকটাক কাজও তার কাছে বেশ কষ্টের মনে হয়।

ত্বকে র‍্যাশ হওয়া ও চুলকানির সমস্যা

কিডনি ড্যামেজ হতে থাকলে রক্তে বর্জ্য বৃদ্ধি পেতে থাকে। এর ফলে ত্বকে চুলকানি ও র‍্যাশ তৈরি হয়।

ছোটো ছোটো শ্বাস

কিডনি রোগের কারনে ফুসফুসে এক প্রকার তরল পদার্থ জমা হতে থাকে। কিডনি রোগের কারনে শরীরে রক্তশূন্যতাও প্রকটভাবে দেখা দেয়। এসব কারণে নিঃশ্বাস আদান প্রদানে সমস্যা তৈরি হয়, তাই অনেকে এইসময় ছোট ছোট করে শ্বাস নিতে থাকে।

আরও পড়ুনঃ   অশ্বগন্ধা কি, কেন, কিভাবে খাবেন এবং অশ্বগন্ধার উপকারিতা ও অপকারিতা

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার এর এই পর্যায়ে আমরা কথা বলবো কিডনি রোগের প্রতিকার নিয়েঃ

যারা কিডনি রোগের ঝুকিতে আছেন বা ইতিমধ্যে যারা কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের জন্য কিছু ব্যবস্থা রয়েছে। যারা ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ, নেফ্রাইটিসে আক্রান্ত তারা কিডনি রোগের সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। বলা যায় আমাদের বাংলাদেশে প্রায় ৭০-৮০ ভাগ কিডনি এই ৩টি কারনেরি ড্যামেজ হয়। অর্থাৎ এই ৩টি রোগ নিয়ন্ত্রনে আনলেই প্রায় ৭০-৮০ ভাগ কিডনি সমস্যা নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
কিডনি রোগ প্রতিরোধে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ

যারা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, তারা তা অবশ্যই নিয়ন্ত্রণ রাখার সর্বোচ্চ চেষ্টা করুন। নিজের ওজন নিয়ন্ত্রণ করুন, বাড়তি ওজন শরীরের জন্য অবশ্যই ক্ষতিকর। ডায়াবেটিস বা রক্তচাপ সবকিছু শুরু হয় বাড়তি ওজন থেকে। এছাড়া বাড়তি কোলেস্টেরলের জন্য রক্তনালী ও হৃদপিন্ডের রোগ হতে পারে। শুধুমাত্র বাড়তি ওজনের কারনে প্রায় ৩০ ভাগ কিডনি রোগ হয়।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

যাদের মধ্যে উচ্চ রক্তচাপ আছে, তাদের অবশ্যই উচিৎ তা নিয়ন্ত্রনে রাখা। এটা সত্যি যে একবার রক্তচাপ বাড়লে তা নিয়ন্ত্রনে আনা বেশ কঠিন। তবে চিকিৎসকের পরামর্ষ অনুযায়ী ঔষধ সেবন ও কিছু নিয়ম মেনে চললে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব। অন্যথায় উচ্চ রক্তচাপ আপনার কিডনিকে নীরবেই ড্যামেজ করে দিতে পারে।

ধূমপান থেকে বিরত থাকুন

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
কিডনি রোগ প্রতিকারে ধূমপান থেকে বিরত থাকুন

ধূমপান থেকে অবশ্যই দূরে থাকতেই হবে। ধূমপান রক্তচাপ বাড়িয়ে আপনার কিডনিকে ধ্বংস করে দেয়। এছাড়াও ধূমপানের কারনে ডায়াবেটিস অনিয়ন্ত্রিত হয়। ধূমপান আপনার ব্রেইনের সক্ষমতা নষ্ট করে এবং এই ধূমপানের কারনে ক্যান্সার পর্যন্ত হয়ে থাকে। সুতারং ধূমপান অবশ্যই পরিহার করতে হবে।

কোলেস্টেরল কমাতে হবে

রক্তে যাদের কোলেস্টেরল রয়েছে তাদের শরীরে নানাবিধ সমস্যা দেখা যায়। কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রনে খাদ্যাভাস অবশ্যই পরিবর্তন করতে হবে। এর কোনই বিকল্প নেই। যেসকল খাবারে অতিমাত্রায় কোলেস্টেরল তা অবশ্যই বর্জন করুন। যেমন চর্বিজাতিয় খাবার, চিংড়ি মাছের মাথা, মাছের মগজ ইত্যাদি।

আরও পড়ুনঃ   কিভাবে তরুণ থাকবেন- কয়েকটি টিপস জেনে নিন

নিয়মিত শরীর চর্চা

কিডনি ভাল রাখতে সবচেয়ে চমৎকার একটি উপায় হলো নিয়মিত শরীর চর্চা করা। নিয়মিত শরীর চর্চার কারনে কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রনে থাকবে, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে থাকবে, বাড়তি ওজন নিয়ন্ত্রনে থাকবে, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে থাকবে। সর্বোপরি আপনার কিডনিকে সুস্থ রাখতে পারে নিয়মিত শরীর চর্চা।

কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কিডনি রোগের কারণ লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি পাথর রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ ও তার প্রতিকার, কিডনি সমস্যার লক্ষণ ও প্রতিকার, কিডনি রোগের লক্ষণ গুলো কি কি, কিডনি ড্যামেজের লক্ষণ, কিডনি রোগ থেকে বাঁচার উপায়, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগের লক্ষণ, দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগ, কিডনি নষ্ট হওয়ার কারণ ও লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ কি, কিডনি ফোলার কারণ, কিডনি রোগের প্রধান লক্ষণ, কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণ,
ভয়াবহ কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার

কিডনি রোগের ভয়াবহতা ব্যাপক তবে তা প্রতিরোধযোগ্য। যদি আপনি কিডনি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার নিয়ে সচেতন থাকেন তবে আপনি এর ভয়াবহতা থেকে রক্ষা পেতে পারেন। একটি জরিপে দেখা গিয়েছে আমাদের দেশে প্রায় ২ কোটি মানুষ ভিবিন্ন কিডনি রোগে ভুগছেন। কিডনি রোগে যদি প্রাথমিক পর্যায়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা যায় তবে কিডনি রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব।

কিডনি বিষয়ক আরো পড়তে নিচের পোষ্ট দুটি দেখতে পারেনঃ

কিডনির জন্য ক্ষতিকর ছয় অভ্যাস

কিডনিতে পাথর হওয়ার লক্ষণ কী? কিডনিতে পাথর দূর করার উপায় কী?

BD Health ভিজিট করার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

আমার লেখা আরো পোষ্ট পড়তে এই লিংকে ক্লিক করতে পারেনঃ Asif Moin

 

ভিডিওঃ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

8 + four =