তরমুজের বিচির চমকপ্রদ উপকারীতা

0
664
তরমুজের বিচির উপকারীতা

তরমুজ একটি গ্রীষ্মকালীন সুস্বাদু ফল। তরমুজের বৈজ্ঞানিক নাম হল Citrullus lanatus. ঠান্ডা তরমুজ গ্রীষ্মকালে বেশ জনপ্রিয়। এতে প্রচুর পরিমাণ পানি থাকে। এই ফলে ৬% চিনি এবং ৯২% পানি এবং অনন্য জিনিস ২%। মিষ্টি তরমুজ খেয়ে আমরা সবসময় বিচি ফেলে দেই। কিন্তু তরমুজের বিচি স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী।

অনেকে বিচির পুষ্টিগুণ সম্বন্ধে জানেন না। এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম, আয়রন, থায়ামাইন, নিয়াসিন, ম্যাঙ্গানিজ, জিঙ্ক, ফসফরাস এবং কপার যা আমাদের শরীরকে নানাভাবে সতেজ রাখে। ১০০ গ্রাম তরমুজের বিচিতে ৬০০ গ্রাম ক্যালরি থাকে। এর ফাইবার শরীরের জন্য খুব উপকারী।

যেভাবে খাবেন: ২০-৩০টি বিচি নিয়ে প্রথমে গুড়ো করে নিন। এরপর ২ লিটার পানিতে এগুলোকে ১৫ মিনিট ভালো করে সিদ্ধ করতে হবে। এই পানীয়টি দুইদিন খেয়ে তৃতীয়দিন খাবেন না। এভাবে কয়েক সপ্তাহ দুইদিন পর একদিন বন্ধ রেখে খেলে অবিশ্বাস্য উপকার পাবেন।

তরমুজের বিচির স্বাস্থ্যগুণ

হৃৎপিণ্ড সুস্থ রাখতে: ম্যাগনেসিয়ামে ভরপুর তরমুজের বিচি হৃৎপিণ্ডকে সচল রাখতে বেশ কার্যকরী। এটি উচ্চ রক্তচাপ কমায় এবং কার্ডিও ভাস্কুলার রোগ প্রতিরোধ করে। এটি হাইপারটেনশন দূর করতেও বেশ কার্যকর।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে: এক কাপ তরমুজের বিচি পানিতে ফুটিয়ে পান করলে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। কারণ এই পানীয় রক্তের সুগারের মাত্রা কমিয়ে দেয়।

ত্বক ভালো রাখতে: তরমুজের বিচি বেটে ত্বকে লাগালে ত্বক ভালো থাকে। এ ছাড়া ত্বকে সরাসরি তরমুজের বিচির তেল লাগালে ব্রণের সমস্যা দূর হয়ে যায়।

স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল: তরমুজের বিচিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, যা চুলের জন্য অনেক বেশি কার্যকরী। এ ছাড়াও তরমুজের বীচিতে উপস্থিত অ্যামিনো এসিড চুলকে করে তোলে মজবুত। তরমুজের বিচি মেলানিন তৈরি করে, যা চুলের রঙ কালো রাখতে সাহায্য করে। তাই তরমুজের বিচি ভাজা প্রতিদিন খাওয়ার অভ্যাস করলে চুল সাদা হওয়ার সমস্যাও দূর হবে।

আরও পড়ুনঃ   সহজ ঘরোয়া উপায়ে বিদায় জানান সর্দিকাশিকে!

খুশকি দূর করে: তরমুজের বিচির তেল সহজে ত্বকের সাথে মিশে যায়। এটি শুষ্ক ত্বকের জন্য সবচেয়ে ভালো ময়েশ্চারাইজার। তাই খুশকি দূর করতে তরমুজের তেল খুব কার্যকর।

ডায়াবেটিস সহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যায় তরমুজের বিচির ব্যবহার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × three =