ঘামের দুর্গন্ধ কেন হয় এবং সহজেই ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়

0
305
ঘামের দুর্গন্ধ কেন হয় এবং সহজেই ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়

প্রচন্ড গরম ও তীব্র রোদে এবার গরমকাল আসতে না আসতেই হাঁসফাঁস অবস্থা। এই গরমে যাঁদের প্রতিদিন চাকরি বা ব্যবসার কাজে বাইরে যেতে হয় বা স্কুল-কলেজে যেতে হয় তাদের মধ্যে অনেকেরই এই ঘামের দুর্গন্ধের সমস্যায় ভুগতে হচ্ছে।

রোদে বাইরে গেলেই কারো কম বা কারো বেশী ঘামাবেই। শরীর থেকে নির্গত ঘাম যতই হোক না কেন এর নিজেস্ব কোন গন্ধ নেই। আমাদের ত্বকে ও শরীরে একধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকে। এই ব্যাক্টেরিয়ার সাথে ঘামের মিশ্রনের কারনেই ঘামের দুর্গন্ধ তৈরী হয়। মাঝে মাঝে এই দুর্গন্ধের কারনে প্রচন্ড বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। শরীরে জমে থাকা ঘামে শুধু দুর্গন্ধ নয়, ছত্রাকজাতীয় বা এলার্জির সংক্রমণও দেখা দিতে পারে।

ঘামের দুর্গন্ধ, ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়, ঘামের দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ, ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার, ঘামের দুর্গন্ধ কমানোর উপায়, ঘামের দুর্গন্ধ কেন হয়,

ঘাম কেন হয়

মানবদেহের দুইটি গ্রন্থি অ্যাপোক্রিন ও অ্যাকরিন থেকেই ঘামের সৃষ্টি হয়। অ্যাকরিন গ্রন্থির কারনেই ব্যায়াম বা শারীরিক পরিশ্রমে ঘামের সৃষ্টি হয়। সাধারনত এই ঘামে তেমন দুর্গন্ধ হয়না। এটি শরীরকে কিছুটা শীতল রাখে। ঘামের দুর্গন্ধের জন্য যৌনাঙ্গে থাকা লোম, রানের চিপা, বগল, অ্যাপোক্রিন গ্রন্থি দায়ী। স্বাভাবিকভাবেই উষ্ণ আবাহাওয়ায় কিছুক্ষণ থাকার পরে বা পরিশ্রম করলেই কম-বেশী ঘাম বের হবেই। আবার অনেকের কোন কারন ছাড়াই বিশেষ কিছু জায়গায় যেমন হাতের তালু বা পায়ের তালু, বগলের নিচে ঘাম হয়ে থাকে। এটিকে হাইপারহাইড্রোসিস বলে।

অতিরিক্ত ঘাম ও ঘামের দুর্গন্ধ হওয়ার কারন

অতিরিক্ত মসলাযুক্ত খাবার ও লবন বেশী খেলে।

খাবারে সালফারের মাত্রা অধিক থাকলে।

মানসিক দুশ্চিন্তা বা উদ্বিগ্ন থাকলে।

ডিম, মাংস, ব্রকলি, পেঁয়াজ, রসুন বেশি খাওয়ার কারনে।

মদ্যপান করে থাকলে।

মেডিসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায়।

হরমোনের ভারসাম্যহীনতা কারনে।

ঘামের দুর্গন্ধ, ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার উপায়, ঘামের দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ, ঘামের দুর্গন্ধ দূর করার, ঘামের দুর্গন্ধ কমানোর উপায়, ঘামের দুর্গন্ধ কেন হয়,

ঘামের দুর্গন্ধ এড়াতে যা করবেন

ফিটিং কাপড় ও সিনথেটিক কাপড়ের পোশাক পরিহার করুন।

পাতলা সুতির পোশাক ও ঢিলেঢালা পোষাক পরুন। বিশেষ গরমে ব্রাইট রঙ্গের পোশাক পরুন।

নিয়মিত মোজা ও অন্তর্বাস পরিষ্কার রাখুন।

নিজেকে সর্বদা পরিচ্ছন্ন রাখুন এবং প্রতিদিন গোসল করুন।

তীব্র গরম ও রোদ সর্বদা এড়িয়ে চলুন। রোদে বাইরে ছাতা ব্যবহারে অভ্যাস করুন।

গরমের ঘামাচির কারনে চুলকানি হলে যথাযিথ ওষুধ নিন।

শরীরের ঘাম হলে দ্রুত পোশাক পরিবর্তেনের চেষ্টা করুন।

অ্যালকোহল বা মদ্যপান থেকে বিরত থাকুন।

কফি ও মসলাযুক্ত খাবার পরিহার করুন।

ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করতে পারেন ঘামের দুর্গন্ধ এড়াতে। তবে প্রথমে অবশ্যই ত্বক পরিষ্কার করে নিবেন।

ব্যাকটেরিয়া রোধে স্যাভলন/ডেটল বা নিমপাতা সিদ্ধ পানি দিয়ে গোসল করুন।

 

আরও পড়ুনঃ   ক্যানসার থেকে বাঁচতে চান? এই ৫টি জিনিসকে বাড়ি থেকে অবিলম্বে দূর করুন

BD Health ভিজিট করার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

আমার লেখা আরো পোষ্ট পড়তে এই লিংকে ক্লিক করতে পারেনঃ Asif Moin

আরো পড়ুনঃ

মেথির উপকারিতা ও অপকারিতা ও মেথি খাওয়ার নিয়ম

চমকে যাওয়ার মতো কাঠ বাদামের উপকারিতা ও খাওয়ার নিয়ম

সঠিক পদ্ধতিতে তরমুজ খেয়ে যৌনশক্তি ১০ গুন বৃদ্ধি করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

14 + sixteen =